১৫ ডিসেম্বর ২০১৭ ইং
সাপ্তাহিক আজকের বাংলা - ৬ষ্ঠ বর্ষ ২৩শ সংখ্যা: বার্লিন, রবিবার ০৪জুন – ১০জুন ২০১৭ # Weekly Ajker Bangla – 6th year 23rd issue: Berlin, Sunday 04 jun – 10 Jun 2017

হাইডি ক্লুম – জার্মানির সৌন্দর্যের প্রতীক

মডেল ক্যারিয়ারে অন্তহীন সাফল্য

প্রতিবেদকঃ ডয়েচে ভেলে তারিখঃ 2017-06-07   সময়ঃ 17:49:15 পাঠক সংখ্যাঃ 237

জার্মান নারীর এক বৈশ্বিক প্রতীক হয়ে উঠেছেন হাইডি ক্লুম৷ গত বিশ বছর ধরে নিজের জনপ্রিয়তা ধরে রেখেছেন মার্কিন পাসপোর্টধারী এই জার্মান সুপার মডেল৷
 
আত্মবিশ্বাসী হাইডি
হাইডি ক্লুমের দীর্ঘ এবং সফল ক্যারিয়ারে সর্বশেষ সংযোজন হতে যাচ্ছে একটি জার্মান সুপারমার্কেটের মার্কিন যাত্রার মডেল হওয়া৷
এখন বয়স তাঁর ৪৪, তবে ক্যারিয়ারের শুরু সেই ১৯৯২ সালে এক মডেলিং প্রতিযোগিতায় যোগ দেয়ার মধ্য দিয়ে৷ হাজারো প্রতিযোগীর সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয় লাভের পর হাই স্কুল গ্রাজুয়েশন করে ১৯৯৩ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান তিনি৷
ভিক্টোরিয়া’স সিক্রেটের প্রথম জার্মান এঞ্জেল
ক্লুমের ক্যারিয়ারে প্রথম বড় সাফল্য আসে ১৯৯৮ সালে৷ সেবছর ‘স্পোর্টস ইলাস্ট্রেটেড’ ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদ কন্যা হন তিনি৷ একই বছর ভিক্টোরিয়া’স সিক্রেটের জন্য কাজ শুরু করেন৷ এই অন্তর্বাস নির্মাতা ব্রান্ডের ফ্যাশন শো-তে অংশ নেয়া যে কোনো আন্তর্জাতিক মডেলেরই স্বপ্ন৷ হাইডি হচ্ছেন সেই শো-তে অংশ নেয়া প্রথম জার্মান মডেল৷
বিজ্ঞাপনের মেয়ে
ভিক্টোরিয়া’স সিক্রেটের বিভিন্ন শো-তে (২০০৯ সালে তোলা ছবি) অংশ নেয়ার বাইরে ফটো মডেল হিসেবে ক্যাটওয়াকের চেয়ে বেশি কাজ করেছেন হাইডি ক্লুম৷ এজন্য ফ্যাশন ডিজাইনাররা তাঁর সমালোচনাও করেছেন৷ কেননা, বড় ফ্যাশন শো-তে তাঁকে পাওয়া যেতো না৷ ১৭৬ সেন্টিমিটার লম্বা ক্লুম অবশ্য এই সমালোচনার জবাব দিয়েছেন এই বলে যে, তিনি অনেক খাটো এবং গোলাকৃতির৷
নতুন মডেলদের ‘মা’
সেই ২০০৬ সাল থেকে নতুন মডেল খুঁজে পাওয়ার একাধিক উদ্যোগ পরিচালনা করছেন হাইডি ক্লুম৷ ‘জার্মানি’স নেক্সট টপ মডেল’ এবং ‘প্রজেক্ট রানওয়ে’ শিরোনামে দেশের সবচেয়ে সুন্দর মেয়ে খুঁজে পাওয়ার দুটি প্রতিযোগিতার সঙ্গে আছেন তিনি৷
এটা কি হাইডি?
২০০৮ সালে মার্কিন নাগরিকত্ব গ্রহণ করেন হাইডি ক্লুম৷ হ্যালুইন পার্টি করতে বেশ ভালোবাসেন তিনি৷ সেই ২০০০ সাল থেকে নিজের সেলেব্রিটি বন্ধুদের নিয়ে নিয়মিত হ্যালুউইন পার্টির আয়োজন করেন৷ সেখানে এমন বেশভুষায় দেখা যায় তাঁকে৷
উত্থান-পতন
ক্লুমের ব্যক্তিজীবন সবসময় মসৃন ছিল না৷ নিজের হেয়ার স্টাইলিস্ট রিক পিপিনোর সঙ্গে ছয় বছর সংসার করার পর ফর্মুলা ওয়ান ম্যানেজার ফ্লাভিও ব্রিয়াটোরের সঙ্গে ২০০৪ সালে প্রথম সন্তান হয় তাঁর৷ এক বছর পর ব্রিটিশ পপ শিল্পী সিলকে বিয়ে করেন তিনি৷ তাঁর সঙ্গে তিনটি সন্তান রয়েছে ক্লুমের৷ ২০১২ সালে বিচ্ছেদ ঘটে এই দম্পতির৷
বর্তমান সঙ্গী
‘রেড হট চিলি পেপার্স’-এর মূল ব্যক্তি অ্যান্থনি কাইডিসের সঙ্গে স্বল্প সময়ের সম্পর্কের পর ২০১৪ সাল থেকে ভিটো স্ন্যাবেলের সঙ্গে আছেন ক্লুম৷ তবে তাঁদের মধ্যেও বিচ্ছেদ ঘটেছে বলে গুজব ছড়াচ্ছে বারবার, যা অস্বীকার করেছেন তারা৷
অন্তহীন সাফল্য
তবে ব্যক্তিজীবনে সম্পর্ক নিয়ে যত নাটকই চলুক, ক্যারিয়ারে সাফল্য ধরে রেখেছেন হাইডি ক্লুম৷ সম্ভাব্য মডেল খোঁজার প্রতিযোগিতার পাশাপাশি ২০১৫ সালে ‘প্রজেক্ট রানওয়ে’-র জন্য একটি অ্যামি এওয়ার্ডও জয় করেন তিনি৷ মার্কিন সিরিজ ‘সেক্স অ্যান্ড দ্য সিটি’ এবং ‘ডেসপারেট হাউসওয়াইভস’-এও অভিনয় করেছেন তিনি৷



আজকের কার্টুন

লাইফস্টাইল

আজকের বাংলার মিডিয়া পার্টনার

অনলাইন জরিপ

প্রতিবেশী রাষ্ট্র মিয়ানমার রোহিঙ্গা দেরকে অত্যাচার করে ফলে ২০১৭ তে অগাস্ট ২৫ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১ মাসে ৫ লক্ষ্য রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে, আপনি কি মনে করেন বাংলাদেশ শরণার্থী দেরকে আবার ফিরে পাঠিয়ে দিক?

 হ্যাঁ      না      মতামত নেই    

সংবাদ আর্কাইভ