২১ এপ্রিল ২০১৮ ইং
সাপ্তাহিক আজকের বাংলা - ৭ম বর্ষ ০২ সংখ্যা: বার্লিন, সোমবার ০৮জানু–১৪জানু ২০১৮ # Weekly Ajker Bangla – 7th year 02 issue: Berlin, Monday 08Jan-14Jan 2018

প্রচন্ড ঠাণ্ডা থেকে রক্ষার ৭ টি উপায়

উত্তর অঞ্চলের জেলা গুলোতে এবারেও আবার শৈতপ্রবাহ শুরু হয়েছে

প্রতিবেদকঃ Mir Monaz Haque তারিখঃ 2018-01-09   সময়ঃ 04:32:43 পাঠক সংখ্যাঃ 272

উত্তর অঞ্চলের জেলা গুলোতে এবারেও আবার শৈতপ্রবাহ শুরু হয়েছে, ঠাকুরগাঁও এ ৭ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে। শীতে প্রচন্ড ঠাণ্ডা থেকে রক্ষার ৭ টি উপায়:

১) জানালা ও দরজা গুলো বায়ুরোধী (air tight) ভাবে বন্দ করুন, পুরাতন কাপড় বা খবরের কাগজ ভাঁচ করে অথবা ফোম দিয়ে বায়ুঢোকার ছিদ্রগুলো বন্দ করুন।
২) সম্ভব হলে এই শীতকালীন সময়ে কয়লার চুলায় (পোর্টেবল) রান্না করুন, চুলার কয়লা পুরাপুরি ভাবে জ্বলা শুরু হলে, চুলাটি বসার ঘরের এনে এক কোনায় রান্না করুন, ভাত, চা কফির পানি গরম ইত্যাদি ...বসার ঘড়েই করুন, তাতে ঘর গরম হবে। খেয়াল রাখবেন ধোঁয়া যেন না হয়। ধোঁয়া হলে কার্বন মনোক্সাইড উৎপাদন হবে, যা শরীরের জন্য ক্ষতিকর।
৩) শোবার ঘড়ে, লেপ কাঁথার নিচে ২/৪ টা কাঁচের বোতলে গরম পানি ভরিয়ে ঘুমানোর আগে রাখুন। এখানেও জানালা দরজা গুলো বায়ুরোধী ভাবে বন্দ করুন।
৪) গায়ে গরম কাপড়ের নিচে ২/৩ টি সুতি গেঞ্জি বা নাইটি পরে তারপর ফ্লানেল পুলোভার পরুন, ২/৩ টি সুতি বস্ত্র পড়লে থার্মো ইসুলেশনের কাজ করবে।
৫) মাফলার দিয়ে কান ঢাকুন, আর হাতে ও পায়ে দু'টি গরম মোজা পরুন, দুটি মোজাপড়লে থার্মো ইসুলেশনের কাজ করবে।
৬) ঘড়ে চুপচাপ বসে থাকবেন না, হাঁটাহাটি করুন, তাতে বায়ু সঞ্চালন হবে, আর নিচের ঠান্ডা বাতাস উপরে যাবে আর উপর থেকে গরম বাতাস নিচে আসবে।
৭) খাদ্যাভ্যাস একটু পরিবর্তন করুন। সুপ জাতীয় খাবার শরীরকে গরম রাখে।
 
যেহেতু আমাদের দেশের বাড়িঘর শীতপ্রধান দেশগুলোর মত সেন্ট্রাল হিটেড বা চিমনি দিয়ে বানানো হয়না, তাই নিশ্চই সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় থেকে জনগনকে জানানো হয়েছে কিভাবে ঠান্ডা থেকে রক্ষা পাওয়া যায়, তবুও আমি আমার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে এই ৭ টি পদ্ধতি জানালাম।
 
'সোলার কালেক্টর' দিয়ে ঘর গরম রাখুন

দেশের উত্তর অঞ্চলে দারুন ঠান্ডা পরেছে, পঞ্চগড়ে ২.৬ ডিগ্রী সেলসিয়াস। আমার টাইমলাইনে ঠান্ডা থেকে রক্ষা পাওয়ার ৭ টি পদ্ধতির কথা লিখেছি গতকাল। এবার, যাদের হাতের কাজের অভিজ্ঞতা আছে তাদেরকে একটি সোলার কালেক্টর দিয়ে ঘর গরম রাখার কারিগরি পদ্ধতি জানাই।

বাজার থেকে কালো রাবারের পাইপ কিনে আনুন ১ ইঞ্চি ব্যাসার্ধ (৮ থেকে ১০ মিটার লম্বা) পাইপের মধ্যে জল ভরিয়ে দুই মাথা ক্লিপ দিয়ে পার্শ্ব সংযোগ দিন। পানি ভর্তি পাইপটি পেঁচিয়ে পেঁচিয়ে উপরের ছবির মত 'কালেক্টর' এর রুপ দিন ও উঁচু জায়গায় রোদ্রে ফিট করুন, সুর্য যদি সঠিকভাবে ঐ রাবারের কলেক্ট্ররে তাপ দেয় তাহলে ২ ঘন্টার মধ্যেই পাইপের ভেতরে পানির তাপমাত্রা ৪০ থেকে ৫০ ডিগ্রী সেলসিয়াস এ পৌছাবে এবার ঐ কালেক্টরের সাথে আর একটি কালো পাইপ সংযুক্ত করুন যা ঐ গরম পানিকে 'কন্টিনিউয়াস ফ্লো' রাখার ব্যবস্থা করে, সেক্ষেত্রে একটা ছোট্ট পাম্প লাগাতে হবে। সেই গরম পানির পাইপটি ঘরে প্রবেশের ব্যবস্থা করুন। এভাবেই সোলার কলেক্টর দিয়ে ঘর কিছুটা গরম রাখতে পারবেন। এটি তৈরি করতে একটু টেকনিকাল জ্ঞান দরকার। কালো রঙের রাবারের পাইপ সৌর বিকিরণ থেকে তাপ সঞ্চয় করে তাই এটিকে 'সোলার কালেক্টর' বলাহয়।


যারা এই 'কালেক্টর' বা 'এবসরর্ভার' বানাতে চান আমার সাথে FB ইনবক্সে যোগাজোগ করুন। এটি বানাতে খুব বেশি হলে খর্চা হবে ৫ হাজার টাকার মত। আর এটি শুধু ঘড় গরমই নয়, স্নানের জল গরম করা ইত্যাদি ও করা যাবে।

 



আজকের কার্টুন

লাইফস্টাইল

আজকের বাংলার মিডিয়া পার্টনার

অনলাইন জরিপ

প্রতিবেশী রাষ্ট্র মিয়ানমার রোহিঙ্গা দেরকে অত্যাচার করে ফলে ২০১৭ তে অগাস্ট ২৫ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১ মাসে ৫ লক্ষ্য রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে, আপনি কি মনে করেন বাংলাদেশ শরণার্থী দেরকে আবার ফিরে পাঠিয়ে দিক?

 হ্যাঁ      না      মতামত নেই    

সংবাদ আর্কাইভ