১৮ জুন ২০১৮ ইং
সাপ্তাহিক আজকের বাংলা - ৭ম বর্ষ ০৮ সংখ্যা: বার্লিন, সোমবার ১৯ফেব্রু–২৫ফেব্রু ২০১৮ # Weekly Ajker Bangla – 7th year 08 issue: Berlin, Monday 19Feb-25Feb 2018

ডিজিটাল মঞ্চেও এসপিডি ভোটের ছায়া

ফেসবুক, টুইটারসহ ইন্টারনেটে সক্রিয় হয়ে উঠেছে জার্মানির এসপিডি

প্রতিবেদকঃ DW তারিখঃ 2018-02-23   সময়ঃ 00:19:30 পাঠক সংখ্যাঃ 157

ফেসবুক, টুইটারসহ ইন্টারনেটে সক্রিয় হয়ে উঠেছে জার্মানির এসপিডি দলের দুই শিবির৷ সরকারে যোগ দেবার প্রশ্নে সদস্যদের সিদ্ধান্তের উপর প্রভাব ফেলতে ব্যবহার করা হচ্ছে হ্যাশট্যাগ৷

জনমত সমীক্ষায় দলের ভাবমূর্তি প্রায় তলানিতে এসে ঠেকেছে, সদস্যদের ভোটের উপর আগামী সরকারে যোগদানের সম্ভাবনা নির্ভর করছে, তারা না বললে নতুন নির্বাচনে প্রায় নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবার আশঙ্কা রয়েছে৷ তা সত্ত্বেও এসপিডি দলের উজ্জ্বল ভবিষ্যতের স্বপ্ন দেখছেন মনোনীত শীর্ষনেত্রী আন্দ্রেয়া নালেস৷ এক টেলিভিশন অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, গত কয়েক সপ্তাহে দলের মধ্যে বিশাল মাত্রায় বিতর্কের ফলে জনসমর্থন হারানো মোটেই বিস্ময়কর নয়৷ তবে দলের সদস্যরা শেষ পর্যন্ত মহাজোট সরকারে যোগ দেবার সিদ্ধান্ত নিলে এসপিডি দলের অনেক নীতি কার্যকর করা সম্ভব হবে৷ তাই ভবিষ্যৎ সম্পর্কে তিনি আশাবাদী৷

এদিকে দলের সদস্যদের সমর্থন আদায় করতে বেশ সৃজনশীল পথ বেছে নিয়েছেন এক নেতা৷ তিনি নিজের ফেসবুক পাতায় জামাইকার গায়ক জিমি ক্লিফ-এর একটি গান পোস্ট করে সদস্যদের উৎসাহ দেবার চেষ্টা করছেন৷ গানের শিরোনাম ‘ইউ ক্যান গেট ইট ইফ ইউ রিয়েলি ওয়ান্ট'৷ অর্থাৎ, সত্যি চাইলে সেটা পাওয়া যায়৷ উল্লেখ্য, নির্বাচনের ঠিক পরে জার্মানিতে জামাইকা কোয়ালিশন গড়ার চেষ্টা চালানো হয়েছিল৷ সেই স্মৃতি জাগিয়ে তুলে আগামী সরকারে এসপিডি দলের অন্তর্ভুক্তির গুরুত্ব তুলে ধরতে পারে এই গান৷

এসপিডি দলে সরকারে যোগ দেবার বিরোধীরাও ইন্টারনেটে সক্রিয় রয়েছেন৷ ‘নোগ্রোকো' নামের হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে টুইটারে প্রচার চালাচ্ছেন তাঁরা৷ বিশেষ করে যুব শাখার তরুণ সদস্যরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জোরালো তৎপরতা দেখাচ্ছেন৷ সরকারে যোগ দেবার প্রশ্নে দলের বয়স্ক ও তরুণ সদস্যদের মধ্যে সংঘাত স্পষ্ট হয়ে উঠছে৷ শুধু ভোটের উপর নির্ভর না করে সরকারে যোগ দেবার বিরোধীরা এক অনলাইন পিটিশন শুরু করেছে৷ প্রায় ৬,৫০০ মানুষ তাতে সমর্থনও জানিয়েছেন৷ এখনো পর্যন্ত দুই শিবিরের জয়ের সম্ভাবনা সম্পর্কে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে না৷ তবে বিশেষজ্ঞদের মতে, এসপিডি দলের যে সব সদস্য এখনো সিদ্ধান্ত নেননি, তাঁদের সমর্থনের উপর ফলাফল নির্ভর করবে৷ 

এসপিডি দলের সদস্যদের উপর বিভিন্ন মহল থেকে চাপ আসছে৷ অবিলম্বে জার্মানিতে সরকার গড়ার গুরুত্ব আবার তুলে ধরেছেন চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল৷ ইউরোপীয় ইউনিয়নের শীর্ষ সম্মেলনের প্রাক্কালে বৃহস্পতিবার সংসদে এক ভাষণে তিনি ব্রেক্সিটসহ ইউরোপের বিভিন্ন আসন্ন চ্যালেঞ্জের কথা মনে করিয়ে দেন৷ তাঁর মতে, এই প্রেক্ষাপটে জার্মানিকে সক্রিয় ভূমিকা পালন করতে হবে৷

এসবি/এসিবি (ডিপিএ, এএফপি)



আজকের কার্টুন

লাইফস্টাইল

আজকের বাংলার মিডিয়া পার্টনার

অনলাইন জরিপ

প্রতিবেশী রাষ্ট্র মিয়ানমার রোহিঙ্গা দেরকে অত্যাচার করে ফলে ২০১৭ তে অগাস্ট ২৫ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১ মাসে ৫ লক্ষ্য রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে, আপনি কি মনে করেন বাংলাদেশ শরণার্থী দেরকে আবার ফিরে পাঠিয়ে দিক?

 হ্যাঁ      না      মতামত নেই    

সংবাদ আর্কাইভ