১৯ জুলাই ২০১৮ ইং
সাপ্তাহিক আজকের বাংলা - ৭ম বর্ষ ২৮ সংখ্যা: বার্লিন, সোমবার ০৯জুল–১৫জুল ২০১৮ # Weekly Ajker Bangla – 7th year 28 issue: Berlin, Monday 09Jul-15 Jul 2018

জার্মান জঙ্গি সংগঠনের নারী সদস্যের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

জঙ্গি সংগঠন এনএসইউ প্রতিষ্ঠার অভিযোগও প্রমাণিত হয়

প্রতিবেদকঃ DW তারিখঃ 2018-07-11   সময়ঃ 16:31:18 পাঠক সংখ্যাঃ 33

নব্য নাৎসি জঙ্গি সংগঠন ন্যাশনাল সোশ্যালিস্ট আন্ডারগ্রাউন্ড বা এনএসইউ-র একমাত্র জীবিত সদস্য, বেয়াটে চ্যেপেকে দশটি খুনের দায়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে৷ জার্মানিতে বিশ্বযুদ্ধ পরবর্তী সবচেয়ে বড় ট্রায়াল ছিল এটি৷

 

মিউনিখের স্টেট আদালতে বুধবার এই রায় দেন৷ বেয়াটের বিরুদ্ধে ২০০০ থেকে ২০০৭ সালের মধ্যে তিনি দশটি খুন, দু'টি বোমা হামলা এবং বেশ ক'টি হত্যা চেষ্টা ও ডাকাতির অভিযোগ প্রমাণিত হয়৷

জঙ্গি সংগঠন এনএসইউ প্রতিষ্ঠার অভিযোগও প্রমাণিত হয় তার বিরুদ্ধে৷

বিচারক মানফ্রেড গোয়েৎসল বলেছেন যে, ‘অত্যন্ত গুরুতর অপরাধে' জড়িত ছিলেন বেয়াটে৷ এর অর্থ ৪৩ বছর বয়সি এই নারীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড, যার সর্বনিম্নমেয়াদ ১৫ বছর, তার থেকেও বেশি কারাভোগ করতে হবে৷

তাকে বন্দুক সরবরাহ করতেন রাল্ফ ভোহ্লেবেন৷ এই বন্দুক দিয়েই সবগুলো খুন করেছেন বেয়াটে৷ রাল্ফকে ১০ বছরের কারাবাস দিয়েছেন আদালত৷

এটি বিশ্বযুদ্ধ পরবর্তী যে কোনো মামলার চেয়ে বেশি সময় নিয়ে নিষ্পত্তি হওয়া মামলা৷ পাঁচ বছর ধরে মোট ৪৩০ দিনের শুনানিতে কয়েকশ' মানুষের জবানবন্দি নেয়ার পর আদালত রায় দিলেন৷

বেয়াটে-র এনএসইউ নামের জঙ্গি সংগঠনটির হত্যার শিকার হওয়া দশজনের নয় জনই অভিবাসী এবং একজন পুলিশ অফিসার৷

রায়ের পরপরই অনেক রাজনৈতিক, সামাজিক সংগঠন ও আইনজীবীরা বিবৃতি দেন৷ তারা বলেন, এই রায়ের মাধ্যমে বিষয়টি এখানেই শেষ বলে ধরে নেয়া যাবে না৷ জার্মানির নব্য নাৎসি জঙ্গি তৎপরতার বিরুদ্ধে আরো তদন্ত দরকার৷

তুর্কি অভিবাসীদের সংগঠন টিজিডি-র এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘‘আঙ্গেলা ম্যার্কেল ও অনেকেই প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন যে একটি পূর্ণ তদন্ত করা হবে৷ কিন্তু সেই প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করা হয়েছে৷''

জার্মানির সাবেক বিচার মন্ত্রী ও বর্তমান পররাষ্ট্র মন্ত্রী হাইকো মাস টুইট করেন, ‘‘অপরাধীরা যা করেছে, তার প্রায়শ্চিত্ত কখনো হবে না৷ যারা হত্যার শিকার হয়েছেন, তাদের ভুলব না৷'' তিনি হ্যাশট্যাগ দিয়েছেন ‘নো কনক্লুশান' বা কোনো সিদ্ধান্ত নয়৷

অনেক আইনজীবীও বিষয়টি পরিপূর্ণ তদন্ত করা হয়নি বলে হতাশা প্রকাশ করেছেন৷ হত্যার শিকার ব্যাক্তিদের পরিবারগুলোর সদস্যরাও রায়ে খুশি হননি৷

এনএসইউ নামের সংগঠনটি বহু আগে থেকে তাদের তৎপরতা চালালেও কেবল ২০১১ সালের ৪ নভেম্বর একটি ঘটনাক্রমে এ সম্পর্কে জানতে পারে পুলিশ৷ একটি ব্যাংক ডাকাতির প্রচেষ্টা ব্যর্থ হলে এই সংগঠনের অপর দুই সদস্য আত্মহনন করেন৷ এর চারদিন পর বেয়াটেও পুলিশের কাছে ধরা দেন৷

জেডএ/ডিজি (ডিপিএ, এএফপি)

 

 



আজকের কার্টুন

লাইফস্টাইল

আজকের বাংলার মিডিয়া পার্টনার

অনলাইন জরিপ

প্রতিবেশী রাষ্ট্র মিয়ানমার রোহিঙ্গা দেরকে অত্যাচার করে ফলে ২০১৭ তে অগাস্ট ২৫ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১ মাসে ৫ লক্ষ্য রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে, আপনি কি মনে করেন বাংলাদেশ শরণার্থী দেরকে আবার ফিরে পাঠিয়ে দিক?

 হ্যাঁ      না      মতামত নেই    

সংবাদ আর্কাইভ