২১ অক্টোবর ২০১৮ ইং
সাপ্তাহিক আজকের বাংলা - ৭ম বর্ষ ২৯ সংখ্যা: বার্লিন, সোমবার ১৬জুল–২২জুল ২০১৮ # Weekly Ajker Bangla – 7th year 29 issue: Berlin, Monday 16Jul-22Jul 2018

ইসরায়েলকে ইহুদি রাষ্ট্র ঘোষণার নিন্দা

নিন্দা জানিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ কয়েকটি দেশও

প্রতিবেদকঃ DW তারিখঃ 2018-07-20   সময়ঃ 02:03:09 পাঠক সংখ্যাঃ 89

ইসরায়েলকে ইহুদি রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণায় নিন্দার ঝড় উঠেছে দেশটিতেই৷ নিন্দা জানিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ কয়েকটি দেশও৷

বৃহস্পতিবার ইউরোপীয় ইউনিয়ন বলেছে যে, শুধু ইহুদিদের স্বীকৃতি দিয়ে ইসলায়েলের সংসদ যে আইন পাশ করেছে তা ইসরায়েল-ফিলিস্তিনের দুই জাতিরাষ্ট্রের সমাধানকে আরো জটিল করবে৷

কয়েক মাস ধরে চলে আসা বিতর্কের পর বৃহস্পতিবার সকালে ইসরায়েল ‘জাতিরাষ্ট্র' আইন পাশ করেছে৷ এরপর থেকে এই সিদ্ধান্ত কঠোর সমালোচনার মুখে পড়েছে দেশটির আরব সংখ্যালঘু ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে৷

‘‘আমরা শঙ্কিত৷ বিষয়টি নিয়ে আমাদের শঙ্কার কথা এর আগেও আমরা ইসরায়েল কর্তৃপক্ষের কাছে তুলে ধরেছি৷'' ইইউ'র পররাষ্ট্র বিষয়ক প্রধান ফেডেরিকা মোঘেরিনির এক মুখপাত্র সংবাদ ব্রিফিংয়ে বলেন৷
‘‘একটা বিষয়ে আমাদের পরিষ্কার মত হলো যে, দ্বি-জাতিরাষ্ট্রই হলো সেখানকার সমস্যা সমাধানের একমাত্র পথ৷ এই সমাধানকে আরো জটিল করে তোলে বা প্রতিবন্ধকতা তৈরি করে এমন যে কোনো সিদ্ধান্ত থেকেই বিরত থাকতে হবে,'' বলেন তিনি৷

 

বৃহস্পতিবার পাশ হওয়া আইনটিতে বলা আছে, ‘‘ইসরায়েল হলো ইহুদিদের ঐতিহাসিক মাতৃভূমি এবং এখানে তাদেরই কেবল আত্মস্বীকৃতি বা আত্মনিয়ন্ত্রণের অধিকার আছে৷''

আইনে আরবি ভাষাকেও দেশটির রাষ্ট্রীয় ভাষার মর্যাদা থেকে নামিয়ে ‘বিশেষ' ভাষা করা হয়েছে৷ এর অর্থ ইসরায়েলি দপ্তরগুলোতে এ ভাষা চলবে, কিন্তু হিব্রুর মতো এটি রাষ্ট্রীয় ভাষার মর্যাদা পাবে না৷

ইসরায়েলে ৯০ লাখ জনসংখ্যার মধ্যে আরবদের সংখ্যা প্রায় ১৮ লাখ৷ অর্থাৎ, প্রায় ২০ ভাগ৷

কিন্তু দ্বি-জাতিরাষ্ট্রে গাজা ও ওয়েস্ট ব্যাঙ্ক নিয়ে আলাদা রাষ্ট্রের যে সমাধানের কথা বলা হয়েছে, তার সম্ভাবনা ছিল, নতুন আইনের ফলে তা আরো ক্ষীণ হয়ে গেছে৷

এদিকে, এই সিদ্ধান্তে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে তুরস্ক৷ তাদের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘‘এই সিদ্ধান্ত আইনের সার্বজনীনতার ওপর আঘাত এবং ইসরায়েলে ফিলিস্তিনি নাগরিকদের অধিকার ক্ষুন্ন করেছে৷

প্রেসিডেন্ট এর্দোয়ানের মুখপাত্র ইব্রাহিম কালিন একে ‘বর্ণবাদী পদক্ষেপ' বলে অভিহিত করেছেন৷

আইনটি পাশ হবার পরপরই একে জাতিবিদ্বেষের চূড়ান্ত বহিঃপ্রকাশ বলে উল্লেখ করেছেন ইসরায়েলের বিরোধীদলগুলো৷ আরব জয়েন্ট লিস্ট জোটের প্রধান আয়মান ওদেহ এই বিলটিকে ‘গণতন্ত্রের মৃত্যু' বলে উল্লেখ করেছেন৷

সংসদ সদস্য ইউসেফ জাবারিন বলেন, ‘‘এই আইন শুধু বৈষম্যকেই নয়, বর্ণবাদকেও উস্কে দেয়৷''

প্যালেস্টাইন লিবারেশন অর্গানাইজেশনের মহাসচিব সায়েম এরেকাত একে ‘ভয়ঙ্কর ও বর্ণবাদী' আইন বলে চিহ্নিত করে বলেন, ‘‘এটি আরবদের প্রতি জাতিবৈষম্য ও ইসরায়েলে বৈষম্যমূলক সিস্টেমকে আইনগতভাবে বৈধতা দেয়৷''

এর আগে বৃহস্পতিবার ইসরায়েলের সংসদে ৬২-৫৫ ভোটে এই আইনটি পাশ হয়৷ পাশ হবার পর দেশটির প্রেসিডেন্ট বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু বলেন, ‘‘এটিই আমাদের দেশ, ইহুদিদের দেশ৷ কিন্তু সম্প্রতি অনেকেই আমাদের অস্তিত্ব ও আমাদের অধিকারকে প্রশ্নের মুখে ফেলেছিলেন৷''

জেডএ/এসিবি (রয়াটর্স, এএফপি)

ইসরায়েল: দেশটি সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য

ছোট্ট দেশ৷ কিন্তু কত ছোট? ইসরায়েলের আয়তনই বা কত? কাজির গরু নাকি গোয়ালে থাকে না, গাছে থাকে৷ ইসরায়েলের ক্ষেত্রে কথাটা একটু অন্যভাবে বলা যায়৷ ইসরায়েলের ভূমি চুক্তিতে থাকে না, বাস্তবে থাকে৷ ১৯৪৯ সালে ইসরায়েল, লেবানন, জর্ডান ও সিরিয়ার মধ্যে যে চুক্তি হয়েছিল সেই চু্ক্তি অনুযায়ী দেশটির আয়তন হওয়ার কথা ২০ হাজার ৭৭০ বর্গ কিলোমিটার৷ কিন্তু ইসরায়েলের আয়তন এখন ২৭ হাজার ৭৯৯ বর্গ কিলোমিটার৷

ইসরায়েল একমাত্র দেশ যেখানে প্রাপ্ত বয়স্ক সব নাগরিকের জন্যই সেনা প্রশিক্ষণ বাধ্যতামূলক৷ সুতরাং দেশটিতে যতজন প্রাপ্তবয়স্ক নাগরিক সেনাসদস্যও এক অর্থে ততজন৷ সেনাপ্রশিক্ষণও স্বল্পমেয়াদি হয় না৷ সব প্রাপ্ত বয়স্ক ছেলেকে ৩ বছরের এবং মেয়েকে অন্তত ২ বছরের প্রশিক্ষণ নিতে হয়৷

ইহুদিদের একটি ধর্মীয় সংগঠন জিওনিজম মতবাদ এবং ইসরায়েল রাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠার বিরুদ্ধে৷ সংগঠনটির নাম, ‘নেতুরেই কার্টা’ বা ‘নগর রক্ষক’৷ ১৯৩৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হওয়া এই সংগঠনটি ‘ফিলিস্তিনের সমর্থক’ হিসেবে পরিচিত৷

নোবেল বিজয়ী জার্মান পদার্থ বিজ্ঞানী আলবার্ট আইনস্টাইন দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ইহুদিনিধন বন্ধ করার আপ্রাণ চেষ্টা করেছেন৷ ইসরায়েল তাঁর কথা শুধু কৃতজ্ঞচিত্তে মনেই রাখেনি, তাঁকে সম্মানও জানাতে চেয়েছিল প্রেসিডেন্ট হওয়ার প্রস্তাব দিয়ে৷ ইসরায়েলের প্রেসিডেন্ট হওয়ার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছিলেন আইনস্টাইন৷

ইসরায়েলে দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীদের জন্য রয়েছে বিশেষ মুদ্রা৷ ‘ব্রেইল’-এর মতো বর্ণের সহায়তায় কাগুজে নোটগুলোতে লেখা থাকে বলে দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীদের কেনাকাটা বা মুদ্রা বিনিময়ে কোনো অসুবিধা হয় না৷ সারা বিশ্বে ইসরায়েল ছাড়া ক্যানাডা, মেক্সিকো, ভারত আর রাশিয়াতেও দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীদের জন্য এই বিষেষ ব্যবস্থা রয়েছে৷



আজকের কার্টুন

লাইফস্টাইল

আজকের বাংলার মিডিয়া পার্টনার

অনলাইন জরিপ

প্রতিবেশী রাষ্ট্র মিয়ানমার রোহিঙ্গা দেরকে অত্যাচার করে ফলে ২০১৭ তে অগাস্ট ২৫ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১ মাসে ৫ লক্ষ্য রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে, আপনি কি মনে করেন বাংলাদেশ শরণার্থী দেরকে আবার ফিরে পাঠিয়ে দিক?

 হ্যাঁ      না      মতামত নেই    

সংবাদ আর্কাইভ