২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং
সাপ্তাহিক আজকের বাংলা - ৭ম বর্ষ ৩৭সংখ্যা: বার্লিন, সোমবার ১০সেপ্ট–১৬সেপ্ট ২০১৮ # Weekly Ajker Bangla – 7th year 37 issue: Berlin, Monday 10Sep-16Sep 2018

সুইডেনে সংসদ নির্বাচনে উগ্র জাতীয়তাবাদী দলের উত্থান

আপডেটেড ফলাফল

প্রতিবেদকঃ মোনাজ হক তারিখঃ 2018-09-10   সময়ঃ 20:53:10 পাঠক সংখ্যাঃ 32

সুইডেনের জাতীয় সংসদে ভোট নিয়ে গত কয়েকদিন ধরেই বিভিন্ন ভাবে মতামত দেবার পর আজ ভোটশেষে আর একটি বিশ্লেষণ অবশ্যই করতে হচ্ছে।

সুইডেনের ভোটের পর জার্মান সোশ্যাল ডেমোক্র্যাট পার্টির কেন্দ্রীয় কার্জালয়ে আজ আলোচনায় ছিলাম (এটা ইউরোপের রাজনীতিতে সাধারন একটি ব্যপার যে, এক দেশে ভোট হলে অন্যান্য দেশে তা নিয়ে আলোচনা হয়) সুইডিস সোশ্যাল ডেমোক্র্যাট এর ভোট দুর্ভাগ্যবশত কমে যাওয়ায়, এই নির্বাচনের ফলাফল ইউরোপের রাজনীতির জন্য একটি টার্নিং পয়েন্টে পরিনত হলো। দক্ষিন পন্থিরা প্রায় ১৮% পাওয়ার ফলে সমিকরণটা অন্যভাবে দেখতে হচ্ছে, অর্থাৎ সোশ্যাল ডেমোক্র্যাট যদি আর তিনটি দলের দাথে একত্রে কোয়ালিশন সরকার গঠন করতে পারে, তবুও ঝুকির মুখে থাকবে কারন, দক্ষিন পন্থিরা তখন বিরোধী দলে থাকবে, আর পার্লামেন্টে বিরোধী দলেরও ক্ষমতাও প্রচুর।

সুইডেনের ডানপন্থী দলের সুইডেন ডেমোক্র্যাট (চরম নাৎসি পন্থি) নির্বাচনে দ্বিতীয় বৃহত্তম দল হবে, এটা এখন প্রায় স্পষ্ট হয়ে উঠেছে।

এখন কি সত্যিই সুইডেন তার কল্যাণমূলক রাষ্ট্র ব্যবস্থা, সামাজিক শান্তি এবং বিশ্বজুড়ে অসংখ্য ত্রাণ তৎপরতার উচ্চ স্বীকৃতির একটি দেশ এভাবেই একটি রাজনৈতিক ভূমিকম্পের সম্মুখীন হচ্ছে? বিশেষ করে সুইডেনে বসবাসরত অভিবাসী রা কি এই - 'পিপি লংস্ট্রমে'র দেশে কল্পনা করতে পারে একটি নাৎসি দলের আগমন? ডানপন্থী ভোটাররা, তাদের নেতা জিমি অ্যাকসনের অধীনে জিনোফোবিক সুইডেন ডেমোক্র্যাটস (এসডি) স্ক্যান্ডিনেভিয়ার দেশটির সংসদীয় নির্বাচনের বিজয়ী করেছে, প্রায় দশ মিলিয়ন অধিবাসীর দেশ - পর পর তৃতীয়বারের মত তারা দৃশ্যত সংসদে, এবার দ্বিতীয় শক্তি যা প্রায় ১৮ শতাংশ ভোটে দ্বিতীয় দল হলো।

সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত প্রধানমন্ত্রী স্টেফেন লোফেনের অধীনে সোশাল ডেমোক্র্যাট দল, যারা এর পূর্বে একটি লাল-সবুজ সংখ্যালঘু সরকার পরিচালনা করেছিল। তার জন্য তাকেও তার সমালোচকরা নেতৃত্বর দুর্বলতা এবং ক্যারিসমার অভাব বলে অভিযোগ করেন, এমনকি বিপর্যয়কর দেউলিয়া হিসেবে চার্জ করা হয় প্রধানমন্ত্রী স্টিফেন লোফেন কে। লোফেনের সাথে সাম্প্রতিককালে, সুইডেনে সোশাল ডেমোক্র্যাট, লেবার পার্টি (এস) তার রাজনৈতিক ডিএনএ হারিয়েছে।

এটি সোশ্যাল ডেমোক্র্যাটদের জন্য একটি ঐতিহাসিক পরাজয়। প্রায় ২৮ শতাংশের মতো তারা শক্তিশালী দল হিসেবে রয়েছেন, তবে এটি তাদের ইতিহাসের সবচেয়ে খারাপ ফলাফল - এবং মধ্যবিত্ত বামপন্থীদের জন্যে একটি চপেটাঘাত। তবে এটি ইতিমধ্যেই অন্যান্য ইউরোপীয় গণতন্ত্রের দ্বারা প্রভাবিত একটি প্রবণতা অব্যাহত থাকলো: অস্ট্রিয়া, চেক প্রজাতন্ত্র, ফ্রান্স, ইতালি, নেদারল্যান্ডস এবং জার্মানি। এবং এমনকি একটি স্ক্যান্ডিনেভিয়াস গল্প একটি নতুন অধ্যায় যোগ হলো: নরওয়ে, ডেনমার্ক এবং ফিনল্যান্ড মধ্যে, ডানপন্থী দলগুলি সরাসরি সরকারের সাথে জড়িত হবার সম্ভবনা বা সেই শক্তি তাদের সামনে চলে না আসলেও, সংসদে আলোচিত থাকবে।

এটি একটি নতুন রাজনৈতিক অবস্থান, তা কিভাবে উত্থান হয়েছে ও মোকাবেলা করা উচিত তা স্পষ্ট নয়। ঐতিহ্যবাহী স্রোতগুলির মধ্যে কেউই যথেষ্ট সংখ্যক ভালো ফলাফল অর্জন করতে পারে নি। সোশ্যাল ডেমোক্র্যাট, গ্রিন এবং বামপন্থী দলের কেন্দ্রীয় বাম দল কিংবা মধ্যপন্থী, সামাজিক ডেমোক্র্যাট এবং দুই উদার দলগুলোর কেন্দ্রীয় ডানপন্থী দলও নয়। বৃহত্তর জোট সুইডেনে এখন পর্যন্ত দৃশ্যমান নয়। সুইডিশ ডেমোক্র্যাট (নাৎসি দল) সঙ্গে সহযোগিতা কার্যত সব দলগুলি বাদ দিয়েছে। এই নির্বাচনের ফলাফলের মধ্যে এখনও একটি কারন ছিলো কি না, তা সন্দেহজনক হয়। এটি যথেষ্ট সম্ভাব্য যে সুইডিশ ডেমোক্র্যাট (নাৎসি) তার পূর্বাভাস দচ্ছে।

আসল ঘটনাগুলি জনগন দেখছে, তাতে নির্বাচনী ফলাফলগুলি অবাক হওয়ার মত নয়। সুইডেন ভালভাবে অর্থনৈতিকভাবে করছে সোশ্যাল ডেমোক্র্যাট দল্টি ২০১৮ সালের মাঝামাঝি অবদি, অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ৩% বৃদ্ধির আশা করা হয়েছে, এবং জাতীয় গড়ের বেকারত্বের হারটিও দশ বছরের মধ্যে কম হওয়ার মতো পরিসংখ্যানে দেখা যায়। যাইহোক, আয় বৈষম্য বৃদ্ধি অন্য কোনও OECD দেশের তুলনায় বেশি। এবং সোশ্যাল ডেমোক্র্যাট সরকারের শুরু থেকেই এক বিভিন্ন মূখি সংস্কারের - যেমন স্বাস্থ্য এবং শিক্ষা ব্যবস্থার প্রয়োজন অনুসারে সংস্কার হয়েনি, এটি একটি বড় নির্বাচনী সমস্যা ছিলো। আর অভিবাসন সমস্যা নিয়ে তারা সুইডিশ ডেমোক্র্যাট (নাৎসি দল) সামাজিক অবনতির কথা সুইডেন বাসিন্দা দেরকে ভয় খাওয়ানো, জোট সরকারকে অভিযুক্ত, তারা সমাজের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করেছ তাই বর্জন অনুভূতি কাজে লাগিয়ে সুইডিশ ডেমোক্র্যাট (নাৎসি দল) তাদের সামাজিক অবস্থান শক্তিশালী করেছে।
সবশেষে অভিবাসন বা রিফুজি সমস্যা দারা ইউরোপের মতই দুইডেনের রাজনীতি তেও দারুন ভাবে প্রভাব ফেলেছে।

কিন্তু সুইডিশ ডেমোক্র্যাট (নাৎসি দল) এর বাস্তব বিষয় ইমিগ্রেশন হিসাবে এটি জার্মান AfD এর মত প্রভাব ফে লেছে। ৪০ বছর বয়সী সুইডিশ ডেমোক্র্যাট (নাৎসি দল) এর প্রধান Åkesson, ২০১০ সালে, প্রথমবারের ৫.৭ শতাংশ সংসদে নেতৃত্বে এবং ২০১৪ সালে ইতিমধ্যে তার ফলাফলের দ্বিগুণ, তার কারন তাদের কৌশল রিফুজি সমস্যাকে কেন্দ্র করে এক ধরনের ড্রাইভ। এক দিকে, ওয়েব সাইটে তাদের প্রচার এবং প্রপাগান্ডা প্রচেষ্টা যেখানে এটি শুধুমাত্র জনগনকে ভয়ভীতি দেখিয়ে তাদের নাৎসি শিকড় ছাড়ায়ে ফেলেছে। এই অনস্থান থেকে একমাত্র সমাধান, সোশ্যাল ডেমোক্র্যাট, গ্রিন এবং মডারেট দের সমর্থনের সরকার গঠন এবং নাৎসি দেরকে একঘরে করে রাখা।

 

আপডেটেড ফলাফলঃ


সোশ্যালডেমক্রাট ২৮,৮%, লেফট পার্টি ৮%, গ্রিন ৪,৪% মিলিয়ে রেড গ্রিন ব্লক ৪০,৭%।
রক্ষণশীল মডারেটপার্টি ১৯,৮%, লিবারেল ৫,৫%, সেন্টার পার্টি ৮,৬% ক্রিস্টডেমক্রাট ৬,৪%। এরা রাইট ব্লক ৪০,৩%।
সুইডেন ডেমোক্রাট আল্ট্রা ন্যাশনালিস্ট ১৭,৬%।

এখানে ভোট অঙ্কের হিসেবে সুইডেন ডেমোক্রাট আল্ট্রা ন্যাশনালিস্ট দলই হলো আপাতত 'কিংগ মেকার' র ভুমিকায়। তবে লেফট ব্লকের দাথে যদি মডারেট রা যোগ দেয় তাহলেই আল্ট্রা ন্যাশনালিস্ট দেরকে বাইরে রাখা যাবে।

 



আজকের কার্টুন

লাইফস্টাইল

আজকের বাংলার মিডিয়া পার্টনার

অনলাইন জরিপ

প্রতিবেশী রাষ্ট্র মিয়ানমার রোহিঙ্গা দেরকে অত্যাচার করে ফলে ২০১৭ তে অগাস্ট ২৫ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১ মাসে ৫ লক্ষ্য রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে, আপনি কি মনে করেন বাংলাদেশ শরণার্থী দেরকে আবার ফিরে পাঠিয়ে দিক?

 হ্যাঁ      না      মতামত নেই    

সংবাদ আর্কাইভ