২৪ অক্টোবর ২০১৮ ইং
সাপ্তাহিক আজকের বাংলা - ৭ম বর্ষ ৪১সংখ্যা: বার্লিন, সোমবার ০৮অক্ট–১৪অক্ট ২০১৮ # Weekly Ajker Bangla – 7th year 41 issue: Berlin, Monday 08Oct-14Oct 2018

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার উন্নয়ন মেলায় এক বাউল শিল্পীর ওপর হামলা

ক্ষমা করুন শামসুল হক চিশতী।

প্রতিবেদকঃ মোনাজ হক তারিখঃ 2018-10-08   সময়ঃ 23:31:44 পাঠক সংখ্যাঃ 35

বাংলা অভিধানে কি নতুন শব্দ সংযোজন হয়েছে 'উন্নয়নমেলা' নামে এর অর্থ কি জানেন?
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার উন্নয়ন মেলায় এক বাউল শিল্পীর ওপর হামলা করেছে মাদ্রাসার ছেলেরা, তাঁকে গান গাইতে দেয়নি, শারীরিক হামলা চালিয়েছে। কারনটা কী? ওইযে অনুভূতির পলিটিক্স। সেই যে ৯০ দশকের শুরুতে এদের বাপ দাদারা অনুভূতির পলিটিক্স করেছিল, এরা তারই চর্চা করছে। আর এই মাদ্রাসার ছেলেরাই এখন প্রাশাসনিক পদে ঢুকছে এই সরকারের কল্যানে। 'উন্নয়ন মেলা'র পলিটিক্সকে এখন মাদ্রাসার ছেলেরাই কলুষিত করছে, কি বলবেন কর্তাব্যক্তিরা? মাদ্রাসার এই বখাটে ছেলেগুলোই কি পরোক্ষভাবে দেশ শাসন করছে?
বাংলাদেশের রাজনীতিকে এমন মূর্খের রাজনীতি বানিয়ে ফেলেছে দূরদৃষ্টিহীন রাজনীতিকরা, যে ভালো কিছুর আশাও করতে পারি না।
 

জনগণের ট্যাক্সের টাকা ব্যয় করে সরকারি দলের উন্নয়নের জয়ধ্বনি করা কি ক্ষমতার অপব্যবহার করা নয়?

ক্ষমা করুন শামসুল হক চিশতী। এই শিরোনামে একটি সংবাদ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেvairal হয়েছে আজ। 
“মাগো, আমি স্কুলেতে আর পড়বোনা হাট্টিমা টিম টিম, মাদ্রাসাতে পড়বো গিয়ে আলিফ-লাম-মিম”
বাউল শিল্পী শামসুল হক চিশতী’র গানের এই লাইনটির জন্যে ব্রাহ্মণবাড়ীয়ার মাদ্রাসা ছাত্ররা তাঁকে গনপিটুনী দিয়ে থানায় দেন। তাকে বহনকারী গাড়িটি ভাংচুর করা হয় এবং উন্নয়ন মেলায় বেশ কিছু স্টল ভাংচুর করা হয়। পরে পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে বিচার বসে।
বাউল শিল্পী সামছেল হক চিশতী বলেছেন, কেবলই অন্তমিল মেলানোর জন্যেই এই লাইনটি তাৎক্ষনিক ভাবেই চলে এসেছে, তিনি কোনও কিছু ভেবে বা উদ্দেশ্য নিয়ে এমন একটি লাইন সংযুক্ত করেননি। কিন্তু কবির তাৎক্ষনিক স্বভাবকবিত্ব’র দুই কানা-কড়ির মূল্য নেই ইসলামে। ইসলামের সকল মূল্য হচ্ছে কিতাবের প্রতি। কবি কবিতা লিখবেন, শিল্পী ছবি আকবেন, গায়ক গাইবেন কেবল কিতাবের দেখানো পথেই। তাই কবির স্বভাবকবিত্ব’র দাম দিতে হয়েছে তাঁকে, তওবা করে।
জামিয়া ইসলামিয়া ইউনুছিয়া মাদ্রাসার মুহাদ্দিস মুফতি আব্দুর রহিম কাসেমী বলেন – “সামছেল হক চিশতী ইসলাম ধর্ম নিয়ে যে কটুক্তি করেছেন তা মেনে নেয়া যায়না। পরে সবার উপস্থিতিতে তিনি ক্ষমা চান, ভুল স্বীকার করে তওবা করেন। ভবিষ্যতে আর এমন হবেনা বলে অঙ্গিকার করেন”।
এই অঙ্গিকারের পরে রাত আড়াইটার পরে তাঁকে থানা থেকে ছেড়ে দেয়া হয়।
- মুহাম্মদ গোলাম সারওয়ার ভাইয়ের লেখা থেকে নীচের অংশ কপিকৃত।

 

 



আজকের কার্টুন

লাইফস্টাইল

আজকের বাংলার মিডিয়া পার্টনার

অনলাইন জরিপ

প্রতিবেশী রাষ্ট্র মিয়ানমার রোহিঙ্গা দেরকে অত্যাচার করে ফলে ২০১৭ তে অগাস্ট ২৫ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১ মাসে ৫ লক্ষ্য রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে, আপনি কি মনে করেন বাংলাদেশ শরণার্থী দেরকে আবার ফিরে পাঠিয়ে দিক?

 হ্যাঁ      না      মতামত নেই    

সংবাদ আর্কাইভ